রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রাত ৯:৫৪

নৌকার কর্মীদের উপর ট্রাকের প্রার্থী-কর্মীদের হামলা, নৌকার ১০ কর্মী আহত, রিপনকে শোকজ

নৌকার কর্মীদের উপর ট্রাকের প্রার্থী-কর্মীদের হামলা, নৌকার ১০ কর্মী আহত, রিপনকে শোকজ

dynamic-sidebar

নৌকার কর্মীদের উপর হামলার পর ঘটনা ভিন্নখাতে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে স্বতন্ত্র ট্রাক প্রতীকের প্রার্থী ও তার কর্মীদের বিরুদ্ধে।

 

ট্রাকের কর্মীদের হামলা ও মারধরে আহত হয়ে নৌকার তিন কর্মী বরিশাল শেরই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এছাড়াও নৌকার কর্মীদের তিনটি মোটর সাইকেল ভাংচুর করা হয়েছে। আটক করে রেখেছে নৌকার দুই কর্মীকে।

স্থানীয়রা অভিযোগ করেছে, এ ঘটনা ধামাচাপা দিতে নিজেরাই ট্রাক প্রতীকের প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে ভাংচুর করে নৌকার কর্মীদের দায়ী করছে। শুক্রবার রাত আটটার দিকে চরবাড়িয়া ইউনিয়নে বাটনা গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। হামলায় আহতরা হলো-নৌকার কর্মী মো. ফেরদৌস, অভি ও রাফি। এর মধ্যে রাফির অবস্থা গুরুতর।

 

ভুক্তভোগী মো. ইমন জানান, চরবাড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ সদস্য শহিদুল ইসলাম ইটালী শহীদের বাড়ীতে পিকনিকে গিয়েছিলেন। সেখান থেকে ফেরার পথে ট্রাক প্রতীকের প্রার্থী সালাহউদ্দিন রিপনের বাড়ীর সামনে হামলার শিকার হয়।

ইমনের অভিযোগ, তাদের আসার খবর পূর্ব থেকে পেয়ে প্রার্থীর বাড়ীর সামনে সড়ক অটোরিক্সা রেখে আটকে দেয়। নৌকার কর্মীদের মোটর সাইকেলের সাথে অটোরিক্সা দিয়ে আঘাত করে হামলা শুরু করে। এক পর্যায়ে ট্রাকের নির্বাচনী কার্যালয়ে চেয়ার নিক্ষেপ শুরু করে।

এতে তাদের মোটর সাইকেল আটকে পড়ে। তখন ট্রাকের কর্মীরা এসে মারধর করে। ট্রাকের কর্মীদের এলোপাতারি মারধরে অন্তত ১০ জন আহত হয়। ট্রাকের কর্মীরা তিনটি মোটর সাইকেল ভাংচুর করে দুই জনকে আটকে রেখেছে বলে অভিযোগ করেছে ইমন।

স্থানীয় একটি সূত্র জানিয়েছে, নগরী থেকে একদল নৌকার কর্মী মোটরসাইকেলে সালাউদ্দিন রিপনের বাড়ির সামনে দিয়ে যাওয়ার সময়  রিপনের কর্মীরা ধাওয়া দিলে নৌকার সমর্থকেরা একটি মোটরসাইকেল ফেলে পালিয়ে যান। পরবর্তীতে রিপনের লোকজন তাঁদের কার্যালয়ের চেয়ার নিজেরাই ভাঙচুর করে ঘটনাটি অতিরঞ্জিতভাবে প্রচার করে।

চরবাড়িয়া ইউনিয়ন নৌকার নির্বাচন পরিচালনার সমন্বয়কারী ও জেলা পরিষদের সদস্য মো. শহিদুল ইসলাম জানান, তাঁরা উলালবাটনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পোস্টার লাগাচ্ছিলেন। তখন খবর পান রিপনের বাড়িতে কারা নাকি হামলা করেছেন। শহিদুলের দাবি, পুরো ঘটনাটি রিপনের সাজানো নাটক।

 

বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জসীমউদ্দিন জানান, তারা পিকনিকে অংশ নিয়ে ফিরছিলেন। পিছন থেকে ট্রাকের কর্মীরা ৩/৪টি মোটর সাইকেলে উপর হামলা করেছে। এতে তাদের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে।

জসিম অভিযোগ করেন, ট্রাক প্রতীকের প্রার্থীসহ তার কর্মীরা বৃহস্পতিবার হুমকি দিয়েছিলো তারা কেন্দ্র দখল করবে। সেই ধারাবাহিকতায় নৌকার কর্মীদের উপর হামলা করেছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন জসিমউদ্দিন।

এদিকে বরিশাল-৫ (সদর) আসনের ট্রাক মার্কার স্বতন্ত্র প্রার্থী সালাউদ্দিন রিপনকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটি। নির্বাচনের দিন সকাল ৭টার মধ্যে ভোট কেন্দ্র দখল করার হুমকি দেওয়ায় সদর আসনের নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটির চেয়ারম্যান যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ শিবলী নোমান খান এ নোটিশ দেন।

৫ জানুয়ারি পাঠানো নোটিশ সূত্রে জানা গেছে, ৪ জানুয়ারি বরিশাল নগরীর বিএম স্কুল মাঠে সালাউদ্দিন রিপনের এক নির্বাচনী সভা অনুষ্ঠিত হয়।

 

সেখানে ভোটের দিন সকাল ৭টার মধ্যে সদর উপজেলার সমস্ত কেন্দ্র দখল করে নেবেন ও মহানগর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দরা বরিশাল সিটি করপোরেশনের সমস্ত নির্বাচনী কেন্দ্র দখলে নেয়ার হুমকি দেন স্বতন্ত্র প্রার্থী সালাহউদ্দিন রিপন।

 

এর ভিডিও ফুটেজও নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটির কাছে রয়েছে। এতে আচরণ বিধি লঙ্ঘন করা হয়েছে। কেন সালাউদ্দিন রিপনের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না ৬ জানুয়ারীর মধ্যে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে।

আমাদের ফেসবুক পাতা

© All rights reserved © 2018 DailykhoborBarisal24.com

Desing & Developed BY EngineerBD.Net